Mobile ReviewMobile Tips

২০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ১০ টি গেমিং ফোন রিভিউ | Gaming Phone in Bangladesh

২০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ১০ টি গেমিং ফোন রিভিউ | Gaming Phone in Bangladesh

একটা সময় ছিল যখন হাই কোয়ালিটির গেমিং খেলার জন্য সবাই কম্পিউটারে ঝুঁকে পড়তো। সে সংখ্যাটা এখনো কম নয় তবে এ পূর্বের তুলনায় অনেকটাই কম বলা যায়। যার অন্যতম কারণ হচ্ছে স্মার্টফোন।

যুগ আধুনিক হচ্ছে একই সাথে হচ্ছে মানুষের হাতের ফোনগুলো । ফিচারস কোন থেকে জাভা, জাভা থেকে স্মার্ট ফোন। তবে এখানে এসে থেমে থাকেনি স্মার্টফোনগুলোতে এত এত ফিচার যুক্ত হচ্ছে যার মাধ্যমে খেলা যাচ্ছে হাই কোয়ালিটি পাওয়ারফুল গেমস গুলো।

এক্ষেত্রে সব ফিচার যুক্ত গেমিং ফোন যদি হাতে নিতে চান তাহলে অনেক সময়ে বাজেট সাড়া দেয় না। তবে একেবারেই যে নেই বিষয়টা এমন না রয়েছে সেক্ষেত্রে আপনি হয়ত অবগত নন।

বাংলাদেশে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর স্ট্যাটিস্টিক অনুযায়ী , একটি গেমিং স্মার্টফোন হাতে নিতে 15 থেকে 20 হাজার টাকা খরচ করতে ইচ্ছুক হয় কিছু কিছু ক্ষেত্রে আরো কম বাজেট হয় আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে 20000 টাকার অধিক যেতে চায়। তবে মিড রেঞ্জের সন্তুষ্টজনক গেমিং স্মার্টফোন এর জন্য এরাউন্ড 20 হাজার টাকা কম্ফর্ট জনে থাকে তাই আজকে 20000 টাকার মধ্যে পাওয়া যায় এমন বেশ কিছু গেমিং স্মার্টফোন নিয়ে আলোচনা করব ।

২০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ১০ টি গেমিং ফোন রিভিউ | Gaming Phone in Bangladesh

আজ এই আর্টিকেলটি মাধ্যমে জানানোর চেষ্টা করব মিট বাজেটের গেমিং ফোন সম্পর্কে। এক্ষেত্রে 20000 টাকার মধ্যে থাকা গেমিং ফোন গুলোর ফিচার্স নিয়ে আলোচনা করব। যার মাধ্যমে সহজে বুঝতে পারেন কোনটি আপনার জন্য পারফেক্ট হতে পারে।

20000 টাকার মধ্যে থাকা গেমিং ফোন গুলো

এই তালিকাটি বর্তমান সময় সাপেক্ষে তৈরি করা হয়েছে। আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করা সব ফিচার যুক্ত ফোনগুলো নিয়েই সাজানো হবে আর্টিকেলটি। স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে সবচেয়ে রিসেন্ট ফোন যেটা রয়েছে সেটিকে কেনাই সর্বোত্তম। তাই এখন বা আগামী কিছু মাসের মধ্যে যদি ফোন কেনার পরিকল্পনা থাকে তাহলে নিচে দেওয়া ফোন গুলো আপনার লিস্টে রাখতে পারেন।

একটি গেমিং স্মার্টফোন এই তিনটি কোয়ালিটি অবশ্যই দেখতে হয় প্রথমত এর প্রসেসর, এরপর পারফরম্যান্স এবং সবশেষে ব্যাটারি ব্যাকআপ। আজকের লিস্টের ফোনগুলোতে এই তিনটি বিষয়ে গুরুত্ব রেখে সাজানো হচ্ছে।

Instant index Api Key Setup in Bangla Full Tutorial

প্রথমেই কম বাজেটের স্মার্টফোন গুলো সম্পর্কে স্বল্প পরিমাণ ধারণা দিতে এবং পর্যায়ক্রমে বাজেট ঊর্ধ্বগতি করতে থাকবো শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়বেন।

REALME C11

আমাদের লিস্টের প্রথম কোনটি হচ্ছে realme c11 বাংলাদেশের বাজারে মাত্র 2000 টাকায় অফিসিয়ালি ফোনটি নিতে পারেন। আপনার নিকটবর্তী যেকোনো রিয়েল মির শোরুম থেকে এই ফোনটি নিতে পারবেন।

6.5 ইঞ্চি এই ফোনটিতে পেয়ে যাবেন MediaTek Helio G35 (12 nm) গেমিং প্রসেসর। 5000 এম্পিয়ার ব্যাটারী। 2gb রম 32gb রম নিয়ে স্মার্টফোনটি চলছে অ্যান্ড্রয়েড টেন ভার্সন। সাথে থাকছে 10w একটি চার্জার।

পিছনে পাচ্ছে ডুয়েল ক্যামেরা সেটআপ যেখানে 13 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। ইপ্রম সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে 5 মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। যা দিয়ে [email protected] ভিডিও শুট করা যায়।

যেহেতু টেলিফোন তাই বেশ কিছু হাই কোয়ালিটির গেম খেলতে পারবেন স্মুথলি। যাদের বাজেট একেবারে লো কিন্তু গেম খেলার জন্য ফোন করছে তাদের জন্য এটা পারফেক্ট

Realme C3

এটি রিয়েল মির আরেকটি গ্রামীণফোন এটাতে পাচ্ছেন 6.5 ইঞ্চি ডিসপ্লে। 2 থেকে 4 জিবি র্যাম সাথে প্রসেসরে হিসেবে থাকছে Helio G70 যেটা কেউ খেলার জন্য যথেষ্ট ভালো।

পাচ্ছেন 5000 mAH এর নাম্বার ব্যাটারি ব্যাকআপ সাথে থাকছে একটি দর্শন 10W চার্জার। ফোনটিতে প্রটেকশন দিতে রয়েছে Corning Gorilla Glass 3

আপনার বাজেট যদি হয় 11000 tk এর মত তাহলে এই ফোনটি আপনার জন্য প্রযোজ্য হতে পারে। কারণ এই বাজেটে এই কনফিগারেশনটি সহ গেমিং ফোন অন্যটি পাওয়া মুশকিল।

Realme 5i

রেডমি কোনটি অধিক মাত্রায় বিক্রি হয়েছে একমাত্র কারণ এটি গেমিং ফোনের পাশাপাশি অন্যান্য ফিচার গুলোর সাথে ও ভালো কাজ করে

প্রসেসর হিসেবে Qualcomm Snapdragon 665 AIE Octa-core CPU পাচ্ছেন জাহাজ স্পিড Up to 2.2GHz । 4GB + 64GB ভেরিয়েন্ট এ পাওয়া যাবে এই ফোনটি।

পুরনো মোবাইল কিনতে আমরা যে ৫ টি ভুল করি । (Old phone buying Guide )

5000mAh এর পাওয়ারফুল ব্যাটারি এর সাথে দিচ্ছে 10W charging power এডাপ্টার। 12MP main camera & 8MP front camera পাচ্ছেন realme 5i তে। বাংলাদেশের এর অফিশিয়াল প্রাইস হচ্ছে 13000 tk

Redmi 9

বাজেট একটু বাড়িয়ে 15000 করে নিলেই পাচ্ছেন রেডমি 9 ফোনটি। Media Tek Helio G80 গেমিং প্রসেসর ফোনটি 3gb + 32gb ও 4gb + 64gb দুইটি ব্যালেন্স পেয়ে যাবেন।

6.53” FHD+ Dot Drop display এর প্রটেকশনের জন্য রয়েছে গরিলা গ্লাস 3।5020mAh এর পরও একটা ব্যাটারি ব্যাকআপ পেয়ে যাবেন গেম খেলার সময়। পিছনে থাকছে 4 টি ক্যামেরা চেয়ারম্যান ক্যামেরা 13 মেগাপিক্সেলের আর সামনে থাকছে একটি 8MP ক্যামেরা।

Vivo Z1 pro

বাজেট যদি আরেকটু বেশি হয় এই ধরুন 17 হাজারের কাছাকাছি তাহলে ভিভো ব্যান্ডের ভিভো z1pro ফোনটি লিস্টে রাখতে পারেন। যথেষ্ট পরিমাণে ভালো ফোনটা গেমিং এর জন্য।

6.5 ইঞ্চ কোনটিতে আপনি 5000 মেগার বড়সড় একটি ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন এছাড়া স্নাপড্রাগণ 712 প্রসেসর যেটা গেমিং প্রসেসর হিসাবে খুবই জনপ্রিয়তা রয়েছে 16 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা পিছনের তিনটে ক্যামেরা সেটআপ করা আছে তবে এর চমক হচ্ছে এর সেলফি ক্যামেরা যা কিনা 32 মেগাপিক্সে

Techno Spark 7 pro

১৩ হাজারের কাছাকাছি রেঞ্জে এই ফোনটি আপনার পছন্দের একটি হতেই পারে। অবশ্যই গেম খেলার ক্ষেত্রে কার্যকর ফোন এটি। এর কিছু ফিচার্স নিম্মে উল্ল্যেখ করলাম।

  •  6.6″ 720×1600 pixels ভিডিও প্লে করা যাবে।
  •  48MP ক্যামেরা যা দিয়ে 1080p এর ছবি উঠবে
  •  4/6GB RAM ও প্রসেসর আছে Helio G80
  •  5000mAh এর বড়সড় একটা ব্যাপারি

Realme Narzo 20

ব্যক্তিগতভাবে খুব পছন্দের ফোন এটি। কি নেই এতে। যেটা একাধারে যেমন গেমিং প্রসেসর ওয়ালা ফোন পাশাপাশি ক্যামেরাও দুর্দান্ত।

খুবই পাওয়ারফুল প্রসেসর Helio G85 নিয়ে গঠিত রিয়েলমির narzo 20 রয়েছে 48MP এর ক্যামেরা যেটা দিয়ে 1080p এর ছবি তোলা যাবে।

6.5″ ফোনটিতে দেয়া আছে 6000 mAH এর লং লাস্টিং ব্যাটারি। তাই গেম খেলার ক্ষেত্রে চার্জ নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কোনো কারন থাকছে না।পেছনে ৩ টি ক্যামেরা আর সামনে ১ টি সেল্ফি ক্যামেরা ( 8MP ) রয়েছে।

Poco M3

রিয়েলমির নার্য ২০ এর কম্পিটিটর হিসেবে শাওমি Poco Band er Poco M3 ফোনটি নিয়ে এসেছে। এটাও গেম খেলার উপযোগী একটা ফোন। ব্যাসিক কিছু ইনফরমেশন জেনে নেয়া যাক এই ফোনটি সম্পর্কে।

  •  6.53″ 1080×2340 pixels
  •  48MP ক্যামেরা যা দিয়ে 1080p ছবি তোলা যাবে।
  •  4/6GB র‍্যাম ও Snapdragon 662 প্রসেসর
  •  6000mAh এর ব্যাটারি

Realme Xt

এই ফোনটি পেয়ে যাবেন ২০০০০ টাকার কাছাকাছি রেঞ্জে। সময়ের সাথে একটু উঠানামা করতে পারে দাম। এটা একটা আদর্শ ফোন রিয়েলমির পক্ষ থেকে। নিম্মে এর কিছু ফিচার্স তুলে ধরছি।

  •  6.4″1080×2340 pixels এর ভিডিও প্লে হবে
  •  64MP যা দিয়ে 2160p এর ছবি তোলা যাবে
  •  4-8GB RAM ও Snapdragon 712 প্রোসেসর
  •  4000 mAh এর ব্যাটারি

এটার কেবল পিছিনে ব্যাটারির দিক থেকেই বাকি সব দারুন সার্ভিস পাবেন লং টাইম ইউজে।

Redmi note 8 pro

বাংলাদেশে প্রচুর শিক্ষিত হওয়া ফোন রেডমি নোট এইট প্রো একটিভ অবস্থায় একই থাকবে এন্ড্রয়েড 11000 থাকছে মিডিয়াটেক প্রসেসর Helio G90T (12nm)

সম্পূর্ণ গ্লাস বডি তবে প্রটেকশন দেওয়া আছে গরিলা গ্লাস 5 এর। এতে রয়েছে ৬৪ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা কোয়াইড ক্যামেরা সেট আপ খুবই ভালো, সব ধরনের গেম গুলো হাই রেগুলেশনে প্লে করা যাবে। এই ফোনের ক্যামেরা ৪৫০০ mAH তবে ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট থাকার কারনে সমস্যা হবে না।

কিভাবে ফেসবুক থেকে ইনকাম করা যায়

পরিশেষে, এই ছিলো সেই সকল ফোনের তালিকা ও রিভিউ যেগুলো বাংলাদেশের মার্কেটে ২০০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button